আজ ২৫শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৮ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

নিকলীতে ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় প্রধান শিক্ষক লাঞ্ছিত, শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি সাদেক মিয়া : কিশোরগঞ্জে নিকলীতে ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় প্রধান শিক্ষককে লাঞ্ছিত করার ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনার প্রতিবাদে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ক্লাশ ও চলমান এসএসসির নির্বাচনী পরীক্ষা বর্জন করে বিক্ষোভ করেছে।

সোমবার (২৩ মে) সকাল ১০টা থেকে ১১টা পর্যন্ত উপজেলার দামপাড়া কারার মাহতাব উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা সাদ মাহমুদ (২০) নামে এক বখাটের বিচারের দাবিতে এ বিক্ষোভ করে। বিক্ষোভে এলাকার সচেতন মানুষজনও একাত্মতা প্রকাশ করেন।

খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আবু হাসান বখাটে সাদ মাহমুদের বিচারের আশ্বাস দিলে পরীক্ষার্থীরা ক্লাশে ও পরীক্ষার হলে ফিরে যায়।

এ সময় শিক্ষার্থীরা ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সাদ মাহমুদকে গ্রেপ্তারের দাবি জানায়। সেই সঙ্গে এ ঘটনার বিচার না হলে তারা আরও কঠোর আন্দোলনের হুশিয়ারি দেয়।

বিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে, দামপাড়া গ্রামের সুমন মাহমুদের বখাটে ছেলে সাদ মাহমুদ তার বন্ধুদের নিয়ে কারার মাহতাব উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে গিয়ে মেয়েদের নিয়মিত উত্যক্ত, ছবি তোলা এবং অশ্লীল মন্তব্য করে আসছিল।

মেয়েরা শিক্ষকদের বিষয়টি জানালে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. দেলোয়ার হোসেন এসব ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করেছিলেন।

এ ঘটনার জেরে রোববার (২২ মে) দুপুরে বখাটে সাদ মাহমুদ বিদ্যালয়ের অফিসের সামনে গিয়ে প্রধান শিক্ষক মো. দেলোয়ার হোসেনকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করে। এছাড়া অকথ্য গালাগালি ও বিদ্যালয় থেকে বের হলে প্রধান শিক্ষককে খুন করবে বলে হুমকি দেয়।

এসময় বিদ্যালয়ের দপ্তরি ইসমাইল প্রতিবাদ করলে বখাটে সাদ মাহমুদ তার ওপর ক্ষিপ্ত হয়ে তাঁকে লোহার রড দিয়ে আঘাত করে আহত করে।

এ বিষয়ে কারার মাহতাব উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. দেলোয়ার হোসেন বলেন, আমাকে লাঞ্ছনার ঘটনা ছড়িয়ে পড়লে শিক্ষার্থীদের মধ্যে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। প্রথম দিন শিক্ষকদের মাধ্যমে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়।

এ বিষয়ে সাদ মাহমুদের বাবার কাছে বিচার প্রার্থী হলে তিনি আমাদের পাত্তা দেননি। পরে রোববার (২২ মে) সন্ধ্যায় থানায় গিয়ে একটি অভিযোগ দিয়ে আসি।

প্রধান শিক্ষক বলেন, ‘বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তার স্বার্থে বখাটে সাদের গ্রেপ্তার প্রয়োজন।’

নিকলী থানার ওসি মো. মুনসুর আলী আরিফ বলেন, প্রধান শিক্ষকের অভিযোগ পেয়েছি। বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের শান্ত করা হয়েছে। অভিযুক্ত বখাটেকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category