আজ ২৫শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৮ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

কিশোরগঞ্জে টিআইবি-সনাক এর প্যাকটা প্রকল্প অবহিতকরণ সভা অনুষ্ঠিত

প্রতিনিধি : সাদেক মিয়া

কিশোরগঞ্জ টিআইবি’র “পার্টিসিপেটরি অ্যাকশন এগেইনস্ট করাপশান: টুয়ার্ডস্ ট্রান্সপারেন্সি অ্যান্ড অ্যাকাউন্টেবিলিটি (প্যাক্টা)” শীর্ষক প্রকল্প অবহিতকরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার (৫ জুলাই) দুপুরে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে এ অবহিতকরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক), কিশোরগঞ্জ এর সভাপতি সাইফুল হক মোল্লা দুলু এর সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শামীম আলম।

এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিভিল সার্জন ডা. সাইফুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ নূরে আলম এবং অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. নাজমুল ইসলাম সরকার।

এছাড়া জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের বিভিন্ন দপ্তরের সরকারি কর্মকর্তাবৃন্দ, নাগরিক সমাজ, বেসরকারি বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থার প্রতিনিধি এবং  সনাক- টিআইবি’র বিভিন্ন পর্যায়ের সদস্যবৃন্দ ও কর্মী  উপস্থিত ছিলেন।

সনাক সদস্য ও টিআইবি’র সাধারণ পর্ষদের সদস্য এডভোকেট মায়া ভৌমিক শুভেচ্ছা বক্তব্যে টিআইবি’র সদ্য সমাপ্ত বিল্ডিং ইনটিগ্রিটি ব্লক ফর ইফেক্টিভ চেঞ্জ (বিবেক) প্রকল্পের ধারাবাহিকতায় ০৫ বছর মেয়াদী “পার্টিসিপেটরি অ্যাকশন এগেইনস্ট করাপশান: টুয়ার্ডস্ ট্রান্সপারেন্সি অ্যান্ড অ্যাকাউন্টেবিলিটি (প্যাক্টা)” প্রকল্প বাস্তবায়নে জেলা প্রশাসনের সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেন।

শুভেচ্ছা বক্তব্য শেষে প্রকল্পের কার্যক্রম বিষয়ে পাওয়ার পয়েন্ট উপস্থাপনা তুলে ধরেন টিআইবি’র ঢাকা ক্লাস্টার কো-অর্ডিনেটর-সিই, মো. মাহান উল হক।

উপস্থাপনা শেষে উন্মুক্ত আলোচনায় অংশগ্রহণ এবং প্রকল্প বাস্তবায়নে সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেন কিশোরগঞ্জ পরিবার পরিকল্পনা বিভাগ এর উপ পরিচালক এস এম খাইরুল আমিন, কিশোরগঞ্জ মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের উপ পরিচালক মামুন অর রশীদ এবং ব্র্যাক এর জেলা প্রতিনিধি শফিকুল ইসলাম।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ নূরে আলম বলেন, সনাক-টিআইবি স্বচ্ছ ও জবাবদিহীমুলক প্রকল্প বাস্তবায়নের মাধ্যমে জনগণকে সচেতন করার জন্য যে প্রয়াস চালিয়ে যাচ্ছে তা প্রশংসার দাবি রাখে। তিনি টিআইবি’র গুণগত গবেষণার মাধ্যমে আরও বস্তুনিষ্ঠ তথ্য তুলে ধরার প্রত্যাশা করেন।

সিভিল সার্জন ডা. সাইফুল ইসলাম বলেন, সনাক-টিআইবি, কিশোরগঞ্জ জেলা সদর হাসপাতালে বিগত সময়ে স্বাস্থ্যসেবার মান উন্নয়নে অ্যাডভোকেসি ও সচেতনতামূলক কার্যক্রম পরিচালনা করেছে। বর্তমান প্রকল্পের কার্যক্রম স্বাস্থ্যসেবার মান উন্নয়নে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে।

প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শামীম আলম প্রকল্পে নির্ধারিত খাতের বাইরে আরও জনসম্পৃক্ত দপ্তরগুলোকে কার্যক্রমের আওতায় নিয়ে নাগরিক সেবার মান বৃদ্ধি ও স্বচ্ছতা এবং জবাবদিহিতার সহায়ক পরিবেশ নিশ্চিতের পরামর্শ প্রদান করেন। প্রকল্পের ০৫ বছরের কর্মকালে টিআইবি’র বাস্তবভিত্তিক তথ্য উপাত্ত সরকারের জন্য সহায়ক হবে এবং কার্যক্রম বাস্তবায়নে তিনি সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category